মেসেঞ্জার রুম ব্যাবহার করার নিয়ম-টেকনো এক্সট্রা

হ্যালো বন্ধুরা আসস্লামুয়ালাইকুম টেকনো এক্সট্রার পক্ষ থেকে আরও একটি নতুন এপিসোডে আপনাদের সকলকে স্বাগতম।এই এপিসোডে আপনি জানতে পারবেন মেসেঞ্জার রুম ব্যাবহার করার নিয়ম।এই আর্টিকেলে মেসেঞ্জার রুম ব্যাবহার করার সুবিধা আলোচনা করা হয়েছে।

গুগল মিট এবং জুমের সাথে পাল্লা দিয়ে ফেসবুক ও চালু করেছে মেসেঞ্জার রুম। করোনা পেনডেমিক সময়ে গুগল মিট এবং জুম খুব দ্রুত গতিতে যাচ্ছে দেখে তারাও মেসেঞ্জার রুম চালু করেছে।একজন ব্যবহারকারী গুগল মিট এবং জুমের যে সুবিধা গুলো পেয়েছেন তারাও একই সুবিধা মেসেঞ্জার রুমে পাবেন।

আরও জানুনঃ

সি প্রোগ্রামিং এর কাজ কী?সি এর ইতিহাস ও বৈশিষ্ট-টেকনো এক্সট্রা

Quora কি?Quora ব্যাবহারে সুবিধা কি কি?-টেকনো এক্সট্রা

এবারে আসি রুম কিভাবে ওপেন করবে। অন্যান্য এপে রেজিস্ট্রেশন এবং ডাউনলোড জামেলা আছে কিন্তু মেসেঞ্জার রুমে এই ঝামেলা নেই। এখানে ইউজারের শুধু ফেসবুক লগিন করা থাকলেই হবে।তাকে শুধু মেসেঞ্জারে গিয়ে ক্রিয়েট রুমে ক্লিক করতে হবে।এরপর নতুন রুম ওপেন হয়ে যাবে।প্রথমে কয়েক জনকে জয়েন করিয়ে নিতে হবে।এরপর তাদের কল করতে হবে।তারা কলে জয়েন করলেই কাজ শেষ।

মেসসেঞ্জার রুমের কি কি সুবিধাঃ

জয়েন করতে কোন অ্যাকাউন্ট দরকার নাইঃ

আমরা অনেকেই গুগল মিট অথবা জুমে জয়েন করেছি সেখানে অনেক ঝামেলার শিকার হতে হয়।যেমন জিমেইল দিয়ে সাইন-ইন করতে হয়।এবং অ্যাপ ডাউনলোড সহ আরও অনেক ঝামেলা।কিন্তু মেসসেঞ্জার রুমে কোন ঝামেলা নেই।এখানে খুব সহজেই একজন কোন অ্যাকাউন্ট ছাড়া জয়েন করতে পারবে।এমনকি মেসসেঞ্জার রুমে জয়েন করতে হলে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট এর ও দরকার নেই।

পপ ইন করে জয়েনঃ

অনেক সময় নিউজ ফিড,মেসেঞ্জার এবং whatsapp রুম দেখা যায় এবং সেখানে হাই দিয়ে ইন্টারয়েস্ট প্রকাশ করা।আবার সরাসরি মেসসেঞ্জার নিউজ ফিড থেকে জয়েন করা যায়।

অনেক ফ্রেন্ড একসাথে রাখা যায়

মেসেঞ্জার রুমে একসাথে অনেক ফ্রেন্ড রাখা যায়।মোবাইল ব্যাবহার করলে এর সিমা ৫০ জন ডেক্সটপে অনেক ফ্রেন্ড রাখা সম্ভব।এজন্য বড় কোন প্রোগ্রাম হলে সাধারনত ডেক্সটপ ব্যাবহার করা ভাল।

আরও জানুনঃ

গুগল মিট বনাম জুম কোন অ্যাপটি সেরা?

জানুন গুগলের সেরা ৭ টি প্রোডাক্ট কি কি?

নিজের মত করে ব্যাবহার করা যায়ঃ

মেসসেঞ্জার রুমের এটা খুবই আকর্ষণীয় ব্যাপার এখানে লাইট,থিম এবং ব্যাকগ্রউন্ড নিজের ইচ্ছে মত পরিবর্তন করা যায়। এবং ৩৬০ ডিগ্রি ব্যাকগ্রাউন্ড বানানো সম্ভব।

নির্ধারিত কোন সময় নেইঃ

এখানে কোন বাধাধরা সময় নেই।ইউজার চাইলে যতক্ষণ খুশি ততক্ষণ এই রুম ব্যাবহার করতে পারবে।মেসসেঞ্জার রুমে দীর্ঘ সময় হাংআউট করাও সম্ভব।

আপনার রুমে আপনারই নিয়মঃ

মেসসেঞ্জার রুমে ইউজারের ইছে মত রুম ব্যাবহার করা যাবে।এখানে অন্য ইউজার কন্ট্রোল নিতে পারবে না।যার রুম তার প্রিওরিটি অনেক বেশি।

গেস্ট নিয়ন্ত্রন করা যায়ঃ

এখানে এডমিন সিধান্ত নিতে পারবে কে মেসসেঞ্জার রুম থেকে জয়েন করবে অথবা কে ফেসবুক থেকে জয়েন করবে।এবং যে ফেসবুক ফ্রেন্ড লিস্টে নেই তাকেও আমন্ত্রন জানানো যাবে।

অ্যাকশান নেওয়া যায়ঃ

অপ্রত্যাশিত লোকদেরকে রুম থেকে বের করে দেওয়া সম্ভব।কেউ যদি রুমে ডিসটারব করে তাহলে তাকে ব্লক করা সম্ভব এটা তারা জানতে পারবে না।

আরও জানুনঃ

অনলাইনে লোগো তৈরি এখন খুব সহজ

ফেসবুক পেজ থেকে আয় করার উপায়।

কিভাবে ডেক্সটপ ব্যাবহার করে মেসেঞ্জার রুমে জয়েন করবেন।

প্রথমে আপনার নিউজ ফিডের উপরে ক্যারজালে দেখতে পারবেন ক্রিয়েট রুম।এরপর আপনি রুমের নাম এবং একটি সময় সেট করে দিবেন।আপনি যদি তাৎক্ষণিক রুম শুরু করতে চান তাহলে সময় সেট করা লাগবে না এবং চাইলে যেকোনো সময় জয়েন করা যাবে।
এরপর ক্রিয়েট রুমে ক্লিক করে নিবেন।পরের স্টেপে একটি লিঙ্ক দেখা যাবে যারা আপনার ফ্রেন্ড লিস্টে নাই তারাও ওই লিঙ্ক ব্যাবহার করে মেসসেঞ্জারে জয়েন করতে পারবে।তারপর সেন্ড ইনভাইটে গিয়ে কিছু ফ্রেন্ডকে অ্যাড করে নিবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button