সি প্রোগ্রামিং এর কাজ কী?সি এর ইতিহাস ও বৈশিষ্ট-টেকনো এক্সট্রা

হ্যালো বন্ধুরা আসস্লামুয়ালাইকুম টেকনো এক্সট্রার পক্ষ থেকে আরও একটি নতুন এপিসোডে আপনাদের সকলকে স্বাগতম।এই এপিসোডে আপনি জানতে পারবেন সি প্রোগ্রামিং এর কাজ কী?সি এর ইতিহাস ও বৈশিষ্ট।

সি প্রোগ্রামিং ভাষা খুবই সহজ,বোধগম্য এবং কোড গুলো খুবই সাবলীল।এটি ১৯৭০ সালে ডেনিশ এম রিচি বেল টেলিফোন ল্যাবরেটরিতে বসে UNIX অ্যাপলিকেশন বানানোর সময় এই সি প্রোগ্রামিং তৈরি করেন। সি হচ্ছে একটি সার্বজনিন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ।

সি কে সকল প্রোগ্রামিং ভাষার জনক ও বলা হয়। অপারেটিং সিস্টেম UNIX তৈরি করার জন্য সি আবিষ্কৃত হয়। UNIX অ্যাপ্লিকেশন টা পুরাপুরি সি প্রোগ্রামিং দিয়ে তৈরি করা হয়।ভিবিন্ন রকম চিত্র-শৈলী সফটওয়্যার বানানোর জন্য সি প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যাবহার করা হয়।

আরও জানুনঃ

Quora কি?Quora ব্যাবহারে সুবিধা কি কি?-টেকনো এক্সট্রা

গুগল মিট বনাম জুম কোন অ্যাপটি সেরা?

সি প্রোগ্রামিং কেন শেখা প্রয়োজনঃ

সি প্রোগ্রামিং একজন ছাত্রের জন্য যেমন গুরুত্বপূর্ণ তেমনি একজন প্রফেশনাল সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারের জন্য ওতটাই গুরুত্বপূর্ণ।কেন একজন প্রোগ্রামারের সি শেখা দরকার তার কিছু গুরুত্বপূর্ণ লিস্ট নিচে দেওয়া হলঃ

  • এটা শেখা খুব সহজ।
  • গাঠনিক লেঙ্গুয়েজ।
  • এটা লো লেভেল প্রোগ্রামিং লেঙ্গুয়েজের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।
  • সকল ধরণের কম্পিউটার অ্যাপলিকেশনের জন্য এটা ব্যাবহার করা যায়।

সি কোথায় লিখবেনঃ

আপনারা অনেকেই দ্বিধা দন্দের মধ্যে থাকেন সি কোথায় লিখবেন। সি লেখার জন্য কি কোড ব্লক ব্যাবহার করবেন নাকি অন্য কোন এডিটর ইন্সটল করবেন।তাদের জন্য এই টপিকসটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।কোন কিছুর দরকার নাই,আপনি আপনার কমপিউটারের সার্চ বক্সে লিখবেন অনলাইন সি কোড এডিটর।ব্যাস এরপর টিউটরিয়াল পয়েন্টে গিয়ে যত খুশি তত কোড লিখবেন।

অথবা নিচের লিঙ্কে ক্লিক করে সরাসরি কোড করতে পারবেন আপনাকে আর কষ্ট করতে হবে না।

লিঙ্কঃঅনলাইন কোড ব্লক

আরও জানুনঃ

জানুন গুগলের সেরা ৭ টি প্রোডাক্ট কি কি?

উপায় অ্যাপ এমবি ছারাই চলবে গ্রামীনফোনে।

সি প্রোগ্রামিং ব্যাবহার করে কিভাবে হ্যালো ওয়ার্ল্ড লিখবেনঃ

এবারে সি প্রোগ্রামিং এর একটি ছোট্ট এক্সাইটমেনট দিব তা হোল কীভাবে আপনি হ্যালো ওয়ার্ল্ড লিখবেন।নিচের কোডটা ব্যাবহার করে আপনি যেকোনো এডিটরে এই কোডটা রান করতে পারবেন।সি প্রোগ্রামিং করতে হলে আপনাকে প্রথমে কিছু লাইব্রেরি ফাংশন লিখতে হবে।এই ফাংশন গুলো ইনপুট ও আউটপুটের জন্য ব্যাবহার করা হয়। #include একটি লাইব্রেরি ফাংশন।

include :সি প্রোগ্রামিং করতে হলে আপনাকে প্রথমে কিছু লাইব্রেরি ফাংশন লিখতে হবে।এই ফাংশন গুলো ইনপুট ও আউটপুটের জন্য ব্যাবহার করা হয়।

int main() :আমরা কি লিখতে যাচ্ছি তা শুরু করার জন্য একটি main() ফাংশন দিতে হবে।

printf :কম্পিউটারে আউটপুট দেখার জন্য printf ব্যাবহার করা হয়।

কোডঃ

#include<stdio.h>
int main() {

printf(“Hello, World!”);
return 0;

}

সি প্রোগ্রামিং দিয়ে কি কি সফটওয়্যার তৈরি করা হয়েছেঃ

সি দিয়ে অনেক কিছু বানানো হয়েছে অপারেটিং সিস্টেম থেকে শুরু করে অনেক গেমিং সফটওয়্যার এবং অ্যানিমেশন।আপনি সি এর ব্যাবহার দেখলে সি প্রোগ্রামিংয়ের প্রেমে পড়ে যাবেন।নিচে সি দিয়ে কি কি সফটওয়্যার বানানো হয়েছে তা উদাহরন সহ বিশ্লেষণ করা হলঃ

অপারেটিং সিস্টেমঃ

আর্টিকেলের শুরুতে unix অপারেটিং সিস্টেমের কথা বলা হয়েছে।সি দিয়ে মাইক্রোসফট উইন্ডো সহ অনেক এনড্রয়েড অ্যাপলিকেশন তৈরি করা হয়েছে।

আরও জানুনঃ

কম্পিউটার হ্যাং হওয়ার কারন কি?হ্যাং হলে করনিও কী কী?

অনলাইনে লোগো তৈরি এখন খুব সহজ

গ্রাফিকাল ইউজার ইন্টারফেসঃ

জি ইউ আই(গ্রাফিকাল ইউজার ইন্টারফেস ) সফটওয়্যার যেমন অ্যাডোবি ফটোশপ তৈরি করা হয়েছিল এই সি প্রোগ্রামিং দিয়ে।এটা এক সময় খুব জনপ্রিয় ছিল।এরপর অ্যাডোবি প্রিমিয়ার এবং ইলাসটেটর এই জনপ্রিয় লেঙ্গুয়েজ দিয়ে তৈরি করা হয়েছিল।

গুগলঃ

গুগল ফাইল সিস্টেম এবং গুগল ক্রম ব্রাউজার ডেভেলপ করা হয়েছে এই সি প্রোগ্রামিং দ্বারা।এছারাও গুগলের অনেক গুলো বড় বড় প্রোজেক্ট এই সি লাঙ্গুয়েজ দিয়ে করা হয়েছে।

মজিলা ফায়ারফক্স এবং ঠাণ্ডারবার্ডঃ

মজিলা ব্রাউজার এবং ঠাণ্ডারবার্ড ও সি দিয়ে বানানো হয়েছে।

গেমে সি এর ব্যাবহারঃ

সি হল জাভা ও পাইথন থেকে অনেক ফাস্ট।সি দিয়ে স্নেক,টিক টক দো সহ অনেক জনপ্রিয় গেম তৈরি করা হয়েছে।২০০৪ সালে ডুম৩ দা ফার্স্ট পারসন হরর গেম তৈরি করা হয়েছিল এই সি প্রোগ্রামিং দিয়ে।

পরিশেসঃ

এতক্ষণ আপনারা জানতে পারলেন সি প্রোগ্রামিং এর কাজ কী?সি এর ইতিহাস ও বৈশিষ্ট।সি কে বলা হয় সকল প্রোগ্রামিং লেঙ্গুয়েজের মা।এটি একটি অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড হাই লেভেল প্রোগ্রামিং ভাষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button